চাকরি যাচ্ছে সেতিয়েনের

৭৪ বছর আগে এমন লজ্জা আর অপমান নিয়ে মাঠ ছেড়েছিল বার্সেলোনা। ৮ গোল খাওয়ার সর্বশেষ ঘটনা ঘটল গতকাল, সেটাও আবার লিওনেল মেসির উপস্থিতিতে। উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের ইতিহাসে এত বড় ব্যবধানে কোনো দল হারেনি।ভেঙে পড়েছেন বার্সার সমর্থকরাও। স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমের খবর বেরিয়েছে যে, মেসিদের হেড কোচ কিকে সেতিয়েনকে বরখাস্ত করা হচ্ছে। নতুন কোচ হওয়ার দৌঁড়ে আছেন সাবেক বার্সা কিংবদন্তি জাভি হার্নান্দেজ।

শুক্রবার ম্যাচ শেষ হওয়ার পর সেতিয়েন নিজেও স্বীকার করে নিয়েছেন যে, বার্সায় তার চাকরি যাওয়া কেবল সময়ের অপেক্ষা। আনুষ্ঠানিক ঘোষণাই কেবল বাকি। চলতি বছরের ১৪ জানুয়ারি আর্নেস্তো ভালভার্দেকে সরিয়ে সেতিয়েনের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছিল বার্সার দায়িত্ব। এবার তার জায়গায় জাভির নাম জোরেশোরে শোনা যাচ্ছে। যদিও কিছুই এখনো নিশ্চিত নয়। কারণ সেতিয়েনকে বরখাস্তের খবর স্প্যানিশ মিডিয়া জানালেও বার্সার পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এখনও কিছু জানানো হয়নি।

বার্সেলোনার প্রেসিডেন্ট বার্তোমিউ বলেছেন, ‘ক্লাব ম্যানেজমেন্ট ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আগামী সপ্তাহে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা হবে। আজকের দিনটা ক্লাবের সমর্থকদের কাছে ক্ষমা চাওয়ার দিন।’

বার্সার কাছে হারের পরে সাংবাদিক সম্মেলনে আসেননি অধিনায়ক লিও মেসি। তার জায়গায় আসেন জেরার্ড পিকে। বার্সার দীর্ঘদেহী ডিফেন্ডার বলেছেন, নতুনদের জন্য যদি জায়গা ছাড়তে হয়, তাহলে তিনি সবার আগে ক্লাব ছাড়বেন। সেতিয়েন বলেছেন, ‘এটা অত্যন্ত যন্ত্রণার হার। আমার থাকা না থাকার কথা বলার সময় এটা নয়। এটা আমার ওপর নির্ভরও করছে না। আমার ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তিত নই। সমর্থকদের কথা ভেবে আমার খারাপ লাগছে।’

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY